এটি জানলে ফোনে মেমরি কার্ড ব্যবহার করা ছেড়ে দিতে বাধ্য হবেন

Best Memory Card
SanDisk Class 10

কমবেশি আমরা সবাই ফোনে  এসডি কার্ড অথবা মেমোরি কার্ড ব্যবহার করে থাকি। তবে বর্তমানে এটির ব্যবহার দিন দিন কমে এসেছে।   এর মূল কারণ আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন।  সেটি হল আপনি এখন মার্কেটে যত কম দামে মোবাইল কিনতে যান না কেন।  সেই প্রত্যেকটি ব্রান্ডের মোবাইলে সর্বনিম্ন 32 থেকে 64gb সেট মেমরি অথবা মেমোরি দিয়ে থাকে। যেখানে আমরা 2010 সালের আগে মাত্র 2GB মেমোরি ব্যবহার করতাম। তখন আমাদের মোবাইলে এত মেমোরির প্রয়োজন হতো না। তাই তখন আমরা একদম কম জিবি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে সক্ষম হতাম। কিন্তু সেখানে আমাদের অডিও ভিডিও কোয়ালিটি এখনকার এর থেকে আরও অনেক  কম ছিল। তাই এটি সম্ভব হয়েছে। কিন্তু এখনকার দিনে আপনি ডিএসএলআর ক্যামেরা দিয়ে অথবা দু’চারটা ফুল এইচডি ভিডিও  অথবা ফোরকে ভিডিও রাখলেই আপনার 2 জিবি মেমোরি কার্ডের স্টোরেজ খুঁজেই পাওয়া যাবে না।

ফোনে SD Card ব্যবহার করা ভালো নাকি খারাপ?

তবে যাই হোক আমি যে মূল কথাটা আপনাদেরকে বলবো। আপনি কেন মেমোরি কার্ড ব্যবহার করবেন না আপনার এন্ড্রয়েড ফোনে। যেহেতু মেমোরি কার্ড আমরা এখনকার দিনে খুব কম মানুষ ব্যবহার করি। তবে একেবারেই কম বললেও ভুল হবে। এখনো সারাবিশ্বে অনেক মানুষ রয়েছে যারা মেমোরি কার্ড ব্যবহার করছে। এছাড়াও আগামীতে করবে। কিন্তু একটা সমস্যা এখন পর্যন্ত সকল মানুষের মধ্যেই থেকে যায়।যদি তার ফুলটি একদম বাজে সেরা না হয়ে থাকে। সেটি হলো ফোন স্লো হয়ে যাওয়া।  ফোন দ্রুত স্টোরেজঃ ভরে যাওয়া অথবা ফুল হয়ে যাওয়া। ফোন হ্যাং করা, মোবাইল গরম হয়ে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। আমাদের মোবাইলটি যখন হ্যাং করে অথবা স্লো হয়ে যায় বা মাল্টিটাস্কিং করতে অসুবিধা হয়।

অকার্যকর অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করবেন না

  তখন আমরা যে কাজটি করে থাকি বিভিন্ন রকমের অ্যাপ্লিকেশন প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করি।   আমাদের ফোনের মেমোরি টাকে বুস্ট করার জন্য। অথবা মোবাইলটা ক্লিন করার জন্য, ক্যাস ডাটা গুলো রিমুভ করার জন্য, এবং ইত্যাদি কাজে আমরা এরকম কিছু অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে থাকি। যেগুলা সম্পূর্ণ এনিমেশন দ্বারা তৈরি করা।  কিন্তু আপনি জানেন কি এই রকম অ্যাপ্লিকেশন আপনার ফোনের জন্য কতটা মারাত্মক।  আপনি সেটা কিনতু একদমই জানেন না। এছাড়াও আমরা সর্বোচ্চ যে কাজটা করে থাকি।  প্রথম কাজ আপনার ফোনে বিভিন্ন রকমের সেটিংস করে মেমোরি কার্ড থেকে সুপারফাস্ট করতে চান।  সেটির ফলে আপনার কাজ হয় একদম জিরো।  আবার অনেকে পার্সোনাল ডাটা গুলো থাকা সত্বেও কিছু কিছু অনেক বছর আগের ছবি ভিডিও ডিলিট করে দিতে বাধ্য হয়। 

মেমোরি কার্ড ব্যবহারে ফোনের ক্ষতিকার দিক

তবে এই সকল সমস্যার সমাধান আমি আপনাদের কি আজকে আর্টিকেলে দেবো।  এটির প্রধান কারণ যদি আমি বলি আপনার মেমোরি কার্ড। আপনি যে মেমোরি কার্ডটা ব্যবহার করেন। সেই মেমোরি কার্ডটা আপনার ফোনটা কে দ্রুত স্লো করে দিচ্ছে।  এ কথাটা শুনে হয়তবা আমাকে পাগল বলতে পারেন। আপনি একটু বলতে পারেন মেমোরি কার্ড এর সাহায্যে আমাদের ফোনের স্টোরিজ গুলা বাড়ানো হয়।

সেই ক্ষেত্রে সেটি না হয়ে উল্টাটা কেন হবে।যার কারণে নাকি আমাদের ফোনে স্নও সমস্যা হতে পারে। হ্যাঁ বন্ধু আপনি এখনো জানেন না। তাই আপনার এই অবস্থা।  আপনি যদি জানতেন যে আপনার ফোনের মেমোরি কার্ডের জন্য আপনার ফোন রিসিভ হয়ে যাচ্ছে। দিন দিন আপনার ফোনটি স্টোরেজ ফুল হয়ে যাচ্ছে। খুব দ্রুত আপনার ফোনে ডাটা ট্রান্সফার হতে অনেক সময় নিচ্ছে।  তাহলে হয়তোবা আপনি এখন আর সেই মেমরি কার্ডটা ব্যবহার করতেন । 

Original VS Copy Memory Card

তবে আজকের আর্টিকেলটি পড়ার পরও আপনার ব্যবহার করবেন কিনা। তা  এখনো আমি শিওর না। তবে এর জন্য আপনি আপনার মেমোরি কার্ড টা কে খুলে রাখতে পারেন। আপনি যে মেমোরি কার্ডটা ব্যবহার করেছেন সেটি অপ্রয়োজনে কাজে ব্যবহার না করাটাই বেটার। আপনার যদি মনে হয় যে আপনার সেট মেমোরি দিয়ে হয়ে যাচ্ছে।  তাহলে আপনি এক্সটার্নাল এসডি কার্ড অথবা মেমোরি কার্ড ব্যবহার না করলে হবে। তবে আপনার প্রশ্ন থাকতে পারে। তাহলে কি আমরা মেমোরি কার্ড একদম ব্যবহার করব না।

কোন মেমোরি কার্ড ভালো?

হ্যাঁ অবশ্যই আপনি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সেটার নতুন ভার্সনে যেন ব্র্যান্ডিং প্লাস অরিজিনাল হয়। তবে মূল বিষয়টা হলো আপনার মেমোরি কার্ডটা দ্রুত ডাটা ট্রান্সফারের জন্য  ক্লাস টেন  মেমরি কার্ডটা ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন।  তবে আমি আপনাদেরকে একটি মেমোরি কার্ড সার্চ করতে পারি তার নিচে ছবি দেওয়া হল। 

এই মেমোরি কার্ডটা নাম- SanDisk Class 10

যেটি আমার কাছে পার্সোনালি খুবই ভাল একটি মেমোরি কার্ড মনে হয়। আপনি আপনার ডিএসএলআর ক্যামেরা। অথবা আপনি আপনার মোবাইল। এ ছাড়াও আপনি কম্পিউটারে ব্যাবহার করতে পারব। এই মেমোরি কার্ডটি।  এই ক্ষেত্রে আপনি আপনার প্রত্যেকটা ডিভাইসে স্মুথ কাজ করতে পারবেন।

Best Phone Memory Card

আর আপনার মেমোরি কার্ডটা যদি ক্লাস ফোর, ক্লাস থ্র , অথবা ক্লাস 2 এরকম হয়ে থাকে।  তাহলে আপনি আপনার মেমোরি কার্ডটা ব্যবহার করাটাই বেটার হবে। তবে আপনি ক্লাস ৬ মেমরি কার্ডটা ব্যবহার করতে পারেন। শুধুমাত্র নরমাল কোন কাজের ক্ষেত্রে হতে পারে সেটা আপনার ফোনের মুভি দেখা গান শোনা ইত্যাদি। কিন্তু ভালো ডাটা ট্রান্সফার অনেক বেশি মাল্টিটাস্কিং ইত্যাদি আপনি করতে চাইলে। আপনাকে সানডিক্স এর ক্লাস টেন মেমরি কার্ডটা ব্যবহার করার জন্য রিকমেন্ড করা হলো।

আশাকরি মেমোরি কার্ড আপনি কেন ব্যবহার করবেন এমনকি কেন ব্যবহার করবেন না কি মেমোরি কার্ড ব্যবহার কর আপনার জন্য সুবিধা এমন কি কি অসুবিধা রয়েছে। প্রত্যেকটি বিষয়ে আপনি সঠিক ক্লিয়ার ধারণা পেয়েছেন। আশা করি আপনার খুব ভালো লেগেছে। ভাল লাগলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।  আর আমাদের সাথেই থাকুন পরবর্তী পোস্টের জন্য।

Total
0
Shares
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Previous Post
Turn Off Facebook Notifications

Turn Off Annoying Notifications on Facebook

Next Post
GP Super Fnf

ফোনের এই ছোট্ট কাজটি জানলে আপনি বড় ঝামেলা হতে বাঁচবেন এবং টাকা সেভ হবে

Related Posts
Total
0
Share